সোমবার , ২ আগস্ট ২০২১ | ২০শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. English Version
  2. Gov. Job
  3. Jobs News
  4. TOP JOBS
  5. অনলাইন টিউটরিয়াল
  6. অপরাধ সংবাদ
  7. ইপিজেড নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি
  8. গার্মেন্টস্ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি
  9. গুরুত্বপূর্ণ সংবাদ
  10. জাতীয় সংবাদ
  11. পরীক্ষার ফলাফল
  12. বিদেশে চাকুরি
  13. বিভাগীয় সংবাদ
  14. বেসরকারি চাকুরি
  15. ভাইরাল সংবাদ

করোনা গবেষণায় বাংলাদেশে টিকা গ্রহণকারীদের শরীরে কি ঘটছে!

প্রতিবেদক
বাংলা সার্কুলার
আগস্ট ২, ২০২১ ৮:০১ অপরাহ্ণ
Covid-19 Vaccine

যারা টিকা দিয়েছেন তাদের শরীরে অন্যদের তুলনায় ৯৮ জনেরই এন্টিবডি তৈরি হয়েছে

বাংলাদেশে এক গবেষণায় দেখা গেছে করনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হওয়ার পর যারা দুই ডোজ টিকা নিয়েছে, তাদের শরীরে অন্যদের তুলনায় বেশি এন্টিবডি তৈরি হয়েছে। এছাড়াও যারা ২ ডোজ টিকা নিয়েছেন তাদের মধ্যে অন্তত শতকরা ৯৮ জনের শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে। ঢাকায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণায় এমন তথ্য উঠে এসেছে।

আরো খবর জানতে দেখুন—

করোনা গবেষণাবিদরা কি বলছেন

করোনা গবেষণাটি পরিচালনা করা হয়েছে বাংলাদেশের একটি মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। তারা ২০৯ জনের উপর এই গবেষণাটি পরিচালনা করেছেন। এদের মধ্যে যে ৩১% ছিলেন আগে থেকেই করোনাভাইরাস আক্রান্ত ছিলেন। পরে সুস্থ্য হয়ে করোনা ভাইরাসের টিকা নিয়েছেন। বাকী ঊনসত্তর পার্সেন্ট যারা কখনও কোভিড আক্রান্ত হননি তারা পূর্ণ দুই ডোজই টিকা গ্রহণ করেছেন।

এই গবেষণা যারা পরিচালনা করেছেন তাদের মধ্যে একজন ডক্টর মোহাম্মদ জাহিদ হোসেন। তিনি বিবিসি বাংলাকে বলেছেন যে তারা দেখতে পেয়েছেন যে ৩১ শতাংশের কথা বলা হয়েছে, যারা আগে থেকেই কোভিড আক্রান্ত ছিলেন এবং সুস্থ হওয়ার পর তারা করোনাভাইরাস টিকা নিয়েছেন। তাদের মধ্যে অন্যদের তুলনায় অ্যান্টিবডি তৈরি হওয়ার পরিমাণ অনেক বেশি ছিল।

টিকা নেয়া ৯৮ ভাগ এর দেহে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার একটা বলয় তৈরি হয়েছে

সারা বিশ্বের যেসব গবেষণা হয়েছে এই অ্যান্টিবডি তৈরির উপরে তার মধ্যে দেখা যাচ্ছে যে টিকা নিলে এন্টিবডি তৈরি হয়, তার মানে কি? বাংলাদেশেও একই রকমের ফলাফল পাওয়া গেল। কারণ সর্বশেষ পরিচালিত এই গবেষণাযটিতে বলা হয়েছে যে, যত মানুষের ওপর গবেষণাটি পরিচালিত হয়েছিল, তাদের অন্তত ৯৮ ভাগ এর দেহে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে। অর্থাৎ একটা বিশাল মানুষের দেহে কিন্তু রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার একটা বলয় তৈরি হয়েছে।

বাকী দুই পার্সেন্ট এর মধ্যে তারা বলছেন যে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়নি। অর্থাৎ এটি বিশ্বের অন্যান্য যেসব গবেষণা আছে সেটির প্রতি সমর্থন করছে।দু্ই শতাংশ মানুষের শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়নি এই টিকা দেওয়ার পরেও। ২০৯ জনের মধ্যে এই গবেষণা চালানো হয়েছে। তার মানে দেখা যাচ্ছে যে ৪/৫ জনের শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়নি টিকা দেওয়ার পরেও এর পেছনে কী কারণ? এই প্রশ্নটিই আমি করেছিলাম ডঃ মোহাম্মদ জাহিদ হোসেনকে।

তিনি আমাকে যে বিষয়টি বলেছেন- সেটি হচ্ছে যে যাদের উপর গবেষণা পরিচালনা করা হয়েছিল, তাদের প্রত্যেকের বয়স ৪০ বছরের বেশি এবং সেটা ৯৩ বছর পর্যন্ত। তাদের গবেষণায় দেখেছেন যে যাদের মধ্যে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়নি তাদের একজনের বয়স ৯৩ বছর। অর্থাৎ যাদের বয়স অনেক বেশি তাদের ক্ষেত্রে কিছুটা সমস্যা দেখা দিয়েছে। এছাড়া তিনি বলেছেন যে, দুরারোগ্য রোগ কিংবা এমন কিছু রোগে ভুগছেন যেগুলো মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে করা হয়েছে।

পূর্ণ দুই ডোজেই অ্যান্টিবডি তৈরী

যে ২০৯ জনের উপর গবেষণাটি পরিচালনা করেছেন এদের মধ্যে ৩১% ছিলেন আগে থেকেই করোনাভাইরাস আক্রান্ত ছিলেন। এরপর গিয়ে টিকা নিয়েছেন। বাকী যে ঊনসত্তর পার্সেন্ট কখনো কোভিড আক্রান্ত হননি তারা পূর্ণ দুই ডোজই টিকা গ্রহণ করেছেন। এ গবেষণার মধ্যে একজন ডক্টর মোহাম্মদ জাহিদ হোসেন তিনি বিবিসি বাংলাকে বলেছেন যে- তারা দেখতে পেয়েছেন ৩১ শতাংশের কথা বলা হচ্ছে তারা আগে থেকেই কোভিড আকান্ত ছিল এবং সুস্থ হওয়ার পর তারা করোনাভাইরাস টিকা নিয়েছেন। তাদের মধ্যে অন্যদের তুলনায় অ্যান্টিবডি তৈরি হওয়ার পরিমাণটা অনেক বেশি ছিল। তথ্য সূত্রঃ বিবিসি বাংলা।

সর্বশেষ - বিদেশে চাকুরি