সোমবার , ২ আগস্ট ২০২১ | ১৪ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. English Version
  2. Gov. Job
  3. Jobs News
  4. TOP JOBS
  5. অনলাইন টিউটরিয়াল
  6. অপরাধ সংবাদ
  7. ইপিজেড নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি
  8. গার্মেন্টস্ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি
  9. গুরুত্বপূর্ণ সংবাদ
  10. জাতীয় সংবাদ
  11. পরীক্ষার ফলাফল
  12. বিদেশে চাকুরি
  13. বিভাগীয় সংবাদ
  14. বেসরকারি চাকুরি
  15. ভাইরাল সংবাদ

বিশ্বব্যাংক রোহিঙ্গাদের ব্যাপারে বাংলাদেশকে হঠাৎ কি প্রস্তাব দিল

প্রতিবেদক
বাংলা সার্কুলার
আগস্ট ২, ২০২১ ৫:৪৩ অপরাহ্ণ
https://banglacircular.com/

রোহিঙ্গাদের স্থায়ীভাবে থাকার সুযোগ দেওয়ার জন্য বিশ্বব্যাংক বাংলাদেশকে প্রস্তাব দিয়েছে

বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানিয়েছেন রোহিঙ্গাদের স্থায়ীভাবে থাকার সুযোগ দেওয়ার জন্য বিশ্বব্যাংক বাংলাদেশকে প্রস্তাব দিয়েছে এবং বাংলাদেশ তা নাকচ করে দিয়েছে।

আমাদের আরো গুরুত্বপূর্ণ খবর দেখতে ——

বাংলাদেশ রোহিঙ্গাদের শরণার্থী হিসেবে স্বীকার করেনা

পরারাষ্টমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন বিবিসিকে বলেছেন- বাংলাদেশ রোহিঙ্গাদের শরণার্থী হিসেবে স্বীকার করেনা। মায়নমার থেকে পালিয়ে আসা এই নাগরিকদের তাদের দেশে ফেরত যেতেই হবে। ঢাকায় বিশ্ব ব্যাংকের কর্মকর্তারা রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশের স্থায়ীভাবে রেখে দেওয়ার প্রস্তাব অস্বীকার করেছেন। তাদের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফেরত না দেওয়া পর্যন্ত নীতিমালা পর্যালোচনা করার কথা তারা বলেছেন।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে বিভিন্ন পর্যায় থেকে অভিযোগ করা হয়েছিল। রোহিঙ্গাদের জন্য অর্থ সহায়তা দেয়ার ক্ষেত্রে তাদের স্থায়ীভাবে থাকার সুযোগ দেয়ার শর্ত দিয়েছে বিশ্বব্যাংক। পরাষ্ট্রমন্ত্রী একে আব্দুল মোমেন বলেন যেসব দেশে শরণার্থী রয়েছে সেই দেশগুলোকে শরণার্থীদের ভোটাধিকারসহ সব অধিকার দিয়ে বসবাসের সুযোগ দেয়ার কথা বলে একটি প্রস্তাব তৈরি করেছে বিশ্বব্যাংক। সেখানে রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে একইভাবে রাখার কথা বলা হয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন। তিনি বলেন এই প্রস্তাবে বাংলাদেশ না বলেছে।

২ হাজার কোটি ডলার সহায়তার প্রস্তাব

বিশ্ব ব্যাংক ২ হাজার কোটি ডলারের একটি তহবিল করছে। সেই তহবিল থেকে বিভিন্ন দেশের শরণার্থীদের জন্য অর্থ সহায়তা দেবে এবং সে জন্য শর্ত দেয়া হচ্ছে। পরারাষ্টমন্ত্রী বলেছেন- বাংলাদেশে রোহিঙ্গাদের স্থায়ীভাবে থাকার সুযোগ দেয়ার শর্তে কোন অর্থ নেবে না।

বিশ্ব ব্যাংকের অস্বীকার

এ ব্যাপারে ইউএনডিপির সঙ্গে যোগাযোগ করে তাৎক্ষণিকভাবে কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে ঢাকায় বিশ্ব ব্যাংকের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে স্থায়ীভাবে রাখার কোনো প্রস্তাব তারা দেয়নি। তারা বলেছে বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশে শরণার্থীদের বিশ্বব্যাংক অর্থ সহায়তা দিয়ে থাকে তার কার্যকারিতা এবং নীতিমালা পর্যালোচনা করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

সেজন্য প্রতিটি দেশকে বিশ্বব্যাংকের প্রতিবেদন পাঠিয়ে বক্তব্য চাওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে বক্তব্য তুলে ধরে বিবৃতি দিয়েছেন ঢাকায় বিশ্বব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর মারসি টিমবয়। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন বিশ্ব ব্যাংক বাংলাদেশ সরকারকে ৫০ কোটি ৯০ লাখ ডলার দিয়ে সাহায্য করছে। যাতে বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীরা মিয়ানমারে নিরাপদে এবং স্বেচ্ছায় প্রত্যাবর্তন না হওয়া পর্যন্ত চাহিদা মেটানো যায়। এছাড়া বাংলাদেশের উপর এর প্রভাব যাতে কম পড়ে। বিশ্বব্যাপী শরণার্থীদের দেশগুলোতে সহায়তার কার্যকারিতা এবং নীতিমালা রিভিউ করা হবে।

যদিও বিশ্ব ব্যাংক রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে স্থায়ী ভাবে রাখার কথা অস্বীকার করেছে। কিন্তু বাংলাদেশের অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে স্থায়ীভাবে রাখার ব্যাপারে বিশ্ব ব্যাংকের প্রস্তাব তারা পেয়েছেন। পরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন রোহিঙ্গাদের শরণার্থী হিসেবে স্বীকৃতি দেয় না বাংলাদেশে তাদের মিয়ানমারে ফেরত যেতেই হবে। এর পক্ষে যুক্তি দিয়ে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে বক্তব্য দেয়া হবে বিশ্ব ব্যাংকের কাছে।

বিশ্বব্যাংক বাংলাদেশকে ৩১ শে জুলাই এর মধ্যেই বক্তব্য দিতে বলেছিল। কিন্তু বাংলাদেশ সরকারের অনুরোধে বক্তব্য দেয়ার জন্য বিশ্বব্যাংকের আরো এক সপ্তাহ সময় দিয়েছে। 

সর্বশেষ - বিদেশে চাকুরি